আজ সোমবার, , ২৬ জুন ২০১৭ ইং

ব্যাংক প্রতারণায় যুক্তরাষ্ট্রে ‘বিএনপি নেতা’ জাহিদ গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-১২ ২০:৪৫:৩৪

সিলেটটুডে ডেস্ক

ব্যাংক প্রতারণায় জড়িত থাকার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশবিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে পরিচয় দানকারী জাহিদ এফ সর্দার সাদী নামের একজন গ্রেপ্তার হয়েছেন।

গত ১৭ মে ওয়াশিংটনে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেস ভবনের সামনে থেকে আমেরিকান গোয়েন্দা সংস্থার হাতে গ্রেপ্তার হন তিনি। রোববার এ খবর জানা গেছে।

সাদীকে পলাতক আসামি হিসেবে এফবিআই দীর্ঘদিন থেকে খুঁজছিল। প্রায় ১০ বছর আগে ২০০৬-০৭ সালের দিকে তিনি ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি করেছিলেন এবং ব্যাংকের সঙ্গে প্রতারণা করেছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। গ্রেপ্তারের পর তার আমেরিকান পাসপোর্ট জব্দ করা হয়েছে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের একজন বিদেশ–সংক্রান্ত উপদেষ্টা হিসেবে দাবি করতেন সাদী। কয়েক বছর আগে ছয়জন মার্কিন কংগ্রেসম্যানের স্বাক্ষর জালিয়াতি করার অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে।

সর্বশেষ, তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে ইসরায়েলি নাগরিক মেন্দি এন সাফাদির কথিত সাক্ষাতের কথা বলে আলোচনায় আসেন।

সে সময় নিউইয়র্কের একাধিক বাংলা সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জাহিদ দাবি করেন, মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে জয়ের কথা হয়েছে। তবে সাফাদি নিজে কিংবা জাহিদ এফ সারদার ওই কথিত সাক্ষাতের পক্ষে কোনো তথ্য–প্রমাণ হাজির করতে পারেননি। সজীব ওয়াজেদ জয়ও ওই বৈঠকের খবর অস্বীকার করেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন জাতিসংঘের ৭১তম অধিবেশনে ভাষণ দিতে এসেছিলেন, তখন জাতিসংঘের সদর দপ্তরের বাইরে প্রতিবাদ সমাবেশের অন্যতম আয়োজক ছিলেন জাহিদ এফ সর্দার সাদী।

গত ১৭ মে পলাতক জাহিদ সর্দারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে নিউইয়র্কের বাংলা সংবাদমাধ্যম টাইম টিভি রোববার (১১ জুন) সংবাদ প্রকাশ করেছে। গ্রেপ্তারের পরপরই তাকে ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোতে হাই সিকিউরিটি ফেডারেল টেনশন সেন্টারে আটকে রাখা হয়েছে।

জাহিদ এফ সর্দার ফ্লোরিডার অরল্যান্ডোতে অবস্থানের সময় সেখানে গ্যাস স্টেশনের ব্যবসা করতেন। ব্যবসার নামে বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড চেক মেশিনের সুবিধা নেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে প্রথম আলো।

অভিযোগে বলা হয়েছে, তিনি ৫৪টি প্রতারণামূলক লেনদেন করেছেন। ইউনাইটেড স্টেটস ডিস্ট্রিক্ট কোর্ট মিডল ডিস্ট্রিক্ট অব ফ্লোরিডায় তার বিরুদ্ধে প্রতারণা এবং অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, জাহিদ এফ সর্দার সাদি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানকে দেউলিয়া এবং ক্ষতিগ্রস্ত করতে বিভিন্ন ধরনের চক্রান্তের আশ্রয় নিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত