আজ সোমবার, , ২০ নভেম্বর ২০১৭ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

২১ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৪:২৬

আজ হাসন রাজার ১৬২তম জন্মবার্ষিকী

বাংলা লোকসংস্কৃতির কিংবদন্তী, মরমী কবি বাউল হাসন রাজার ১৬২তম জন্মবার্ষিকী আজ।

তার প্রকৃত নাম দেওয়ান হাসন রাজা। বাংলাদেশে মরমী সাধনার দর্শনচেতনার সাথে সঙ্গীতের এক অসামান্য সংযোগ ঘটিয়েছেন তিনি। ১৫ বছর বয়সে বাবা ও বড় ভাইকে হারিয়ে আধ্যাত্মিক সাধনায় মন দিয়ে লিখেছেন বেশকিছু কালজয়ী গান।

হাসন রাজার জন্ম ১৮৫৪ সালের ২১ ডিসেম্বর (৭ পৌষ ১২৬১) সেকালের সিলেট জেলার সুনামগঞ্জ শহরের নিকটবর্তী সুরমা নদীর তীরে লক্ষণশ্রী পরগণার তেঘরিয়া গ্রামে। হাসন রাজা জমিদার পরিবারের সন্তান। তার পিতা দেওয়ান আলী রাজা চৌধুরী ছিলেন প্রতাপশালী জমিদার। হাসন রাজা তাঁর দ্বিতীয় পুত্র। স্বশিক্ষিত এই মরমী শিল্পী সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় লিখেছেন অসংখ্য গান। দিয়েছেন সুর। গান লেখার পাশাপাশি আসর ও গায়ক দল নিয়ে নৌকা ভ্রমণের নেশা ছিলো তার। অংশ নিতেন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও।

বিদ্যালয়ের পড়াশুনায় বেশিদূর না এগোলেও শিক্ষা বিস্তারে রেখেছেন বিশেষ ভূমিকা। হাসন রাজার সঙ্গীত ও দর্শনে মুগ্ধ হয়েছিলেন বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

মরমী গানের ছক-বাঁধা বিষয় ধারাকে অনুসরণ করেই হাসনের গান রচিত। ঈশ্বানুরক্তি, জগৎ জীবনের অনিত্যতা ও প্রমোদমত্ত মানুষের সাধন-ভজনে অক্ষমতার খেদোক্তিই তাঁর গানে প্রধানত প্রতিফলিত হয়েছে। কোথাও নিজেকে দীনহীন বিবেচনা করেছেন, আবার তিনি যে অদৃশ্য নিয়ন্ত্রকের হাতে বাঁধা ঘুড়ি সে কথাও ব্যক্ত হয়েছে। 'লোকে বলে, বলে রে, ঘর বাড়ি ভালা নাই আমার, কি ঘর বানাইলাম আমি শূন্যেরই মাঝার' তার অসাধারণ এক সৃষ্টি। এমন অসংখ্য গানের জন্ম দিয়েছেন এই গীতিকবি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত