আজ শনিবার, , ১৯ আগস্ট ২০১৭ ইং

ব-দ্বীপ বন্ধ ও প্রকাশক মানিককে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ বইমেলায়

 প্রকাশিত: ২০১৬-০২-১৭ ২০:০০:২৫

 আপডেট: ২০১৬-০২-১৭ ২০:২১:৪১

সিলেটটুডে ডেস্ক:

ধর্মীয় অনভূতিতে আঘাতের কারণ দেখিয়ে বইমেলা থেকে ব-দ্বীপ প্রকাশন বন্ধ করে প্রকাশক সহ তিনজককে গ্রেপ্তার করার প্রতিবাদে মানববন্ধন হয়েছে একুশে বইমেলা প্রাঙ্গণে।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় ‘লেখক-প্রকাশক-পাঠক-জনতা’ ব্যানারে এই মানববন্ধন হয়।

মুখে কালো কাপড় বেঁধে এই কর্মসূচিতে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতা-কর্মীরাও অংশ নিয়ে প্রতিবাদ জানান।

লেখক লাবণী মণ্ডল বলেন, “শামসুজ্জোহা মানিক একজন মুক্তিযোদ্ধা। এ দেশে যারা প্রগতিশীল, সৎ, নির্লোভ, শামসুজ্জোহা মানিক তাদের একজন। তার বয়স এখন ৬৮ চলছে, এ বয়সের তাকে রিমান্ডে নিতে পারে না রাষ্ট্র।

“সরকারের কাছে জানতে চাই, আমরা কি জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে যুক্ত হব?”

শ্রাবনী প্রকাশনীর প্রকাশক রবীন আহসান বলেন, "বাংলা একাডেমি লেখক প্রকাশকদের স্বার্থ না দেখি মৌলবাদি উগ্রবাদিদের স্বার্থ দেখছে"

ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি লাকী আক্তার বলেন, “আপনারা অভিজিতের হত্যাকারীকে ধরতে পারেন না, আপনারা খুনিদের স্ট্যাটাস পড়ে মুক্তচিন্তার মানুষকে গ্রেপ্তার করতে পারেন।”

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খানের উদ্দেশে লাকী বলেন, “কেউ যদি বলে বই-ই ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে, তাহলে কি আপনি পুরো  বইমেলা বন্ধ করে দেবেন?

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন উদীচীর সহসাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপন,  সাংগঠনিক সম্পাদক সঙ্গীতা ইমাম।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীদের হাতে ছিল ‘মানবতার মুক্তি চাই, মুক্ত চিন্তার বিকল্প নাই’, ‘মুক্তমনা লেখক হত্যার বিচার চাই’, ‘মুক্তচিন্তার সংগ্রাম চলবেই’, ‘লেখকের হাতে হাতকড়া কেন? অবরুদ্ধ মুক্তবুদ্ধি জেগে ওঠো, রুখে দাঁড়াও’, ‘বইমেলায় পুলিশি আগ্রাসন রুখে দাঁড়াও’ লেখা প্ল্যাকার্ড।

আপনার মন্তব্য