আজ বৃহস্পতিবার, , ৩০ মার্চ ২০১৭ ইং

শ্লীল আর অশ্লীল বিচার করবে কে : তসলিমা নাসরিন

 প্রকাশিত: ২০১৬-০২-১৮ ১৭:১১:০৯

 আপডেট: ২০১৬-০২-১৮ ২৩:২৯:২৮

ওয়েব ডেস্ক:

কোন লেখা শ্লীল আর কোনটা অশ্লীল তা বিচার করবে কে, ‘ইসলাম বিতর্ক’  বই সম্পর্কে চলমান বিতর্কে অংশ নিয়ে এমন প্রশ্ন করেছেন নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

একুশে গ্রন্থমেলায় ব-দীপ প্রকাশনের স্টল বন্ধ, লেখক-প্রকাশককে গ্রেপ্তার ও সাহিত্যিক শিক্ষাবিদ মুহম্মদ জাফর ইকবাল কর্তৃক 'ইসলাম বিতর্ক' নামক বই নিষিদ্ধের প্রেক্ষিতে দেওয়া মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তসলিমা এ মন্তব্য করেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ফেসবুকে লেখা এক স্ট্যাটাসে তসলিমা নাসরিন এ প্রসঙ্গে তাঁর যুক্তি তুলে ধরে বলেন, কোনও লেখা কারও কাছে অশ্লীল ঠেকে, কারও কাছে ঠেকে না। যে লেখে তার কাছে তার লেখা শ্লীল মনে হয় বলেই সম্ভবত লেখে। ধরা যাক, কোনও লেখকের কোনও লেখা সবার কাছে অশ্লীল আর অশালীন বলে মনে হচ্ছে, তাহলে কি লেখককে শাস্তি দিতে হবে? তার স্টল বন্ধ করে দিতে হবে?

তিনি প্রশ্ন রেখে লিখেন, অশ্লীল লেখা লেখার অধিকার কি লেখকদের নেই? প্রকাশকদের কি অধিকার নেই অশ্লীল লেখা ছাপানোর? তাদের কি অধিকার নেই বইমেলায় স্টল দেওয়ার? পাঠকের কি অধিকার নেই অশ্লীল বই কেনার? অশালীন বই পড়ার?

তসলিমা নাসরিন আরও লিখেন, কে বলেছে বই লিখলে শ্লীল বই লিখতে হবে? মানুষের জীবন যাপন অশ্লীল, মানুষের চিন্তাভাবনা অশ্লীল , মানুষের বর্বরতা অশ্লীল,লোক ঠকানো, অপহরণ, ধর্ষণ, খুন সব অশ্লীল। অশ্লীল মানুষ নিয়ে লেখকরা অশ্লীল বই লিখতে পারবে না। আহ, আহলাদ দেখে বাঁচি না।

তসলিমা নাসরিন লিখেন-

একুশের বইমেলায় ব-দ্বীপ প্রকাশনীর যে স্টল ছিল, সেটিকে বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দিয়েছে। বইটির লেখক-প্রকাশককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে প্রগতিশীল লেখক হিসেবে খ্যাত মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন, 'যে বইটির কারণে স্টলটি বন্ধ করা হয়েছে, সেটির কয়েকটি লাইন আমাদের বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান আমাকে পড়ে শুনিয়েছেন। আমি কয়েক লাইন শোনার পর আর সহ্য করতে পারি নি। এত অশ্লীল আর অশালীন লেখা। এই স্টলটিকে আর অন্য দশটি সাধারণ স্টলের সঙ্গে তুলনা করলে চলবে না। তিনি বলেন, আমি মনে করে লেখালেখির সময় কিছুটা সতর্ক থাকতে হবে। যাতে কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত না আসে। আর যে বইটির বিষয়ে কথা হচ্ছে, আমার অনুরোধ কেউ যেন এই বইটি না পড়ে।'

কী সাংঘাতিক কথা! কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত যেন না আসে, লেখার সময় লেখকদের বলেছেন সতর্ক থাকতে! মানুষের মত প্রকাশের অধিকারের চেয়ে ধর্মীয় অনুভূতির মূল্য তিনি বেশি দিচ্ছেন! ধর্মীয় মৌলবাদীরা, যারা নিজেদের ছাড়া অন্য কারও মত প্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না, ঠিক এরকম কথা বলে। অবাক হলাম শুনে যে বইয়ের কয়েক লাইন শুনেই জাফর ইকবাল রায় দিয়ে দিয়েছেন, লেখাটি অশ্লীল আর অশালীন!

কোন লেখা শ্লীল আর কোনটা অশ্লীল তা বিচার করবে কে শুনি! কোনও লেখা কারও কাছে অশ্লীল ঠেকে, কারও কাছে ঠেকে না। যে লেখে তার কাছে তার লেখা শ্লীল মনে হয় বলেই সম্ভবত লেখে। ধরা যাক, কোনও লেখকের কোনও লেখা সবার কাছে অশ্লীল আর অশালীন বলে মনে হচ্ছে, তাহলে কি লেখককে শাস্তি দিতে হবে? তার স্টল বন্ধ করে দিতে হবে? অশ্লীল লেখা লেখার অধিকার কি লেখকদের নেই? প্রকাশকদের কি অধিকার নেই অশ্লীল লেখা ছাপানোর? তাদের কি অধিকার নেই বইমেলায় স্টল দেওয়ার? পাঠকের কি অধিকার নেই অশ্লীল বই কেনার? অশালীন বই পড়ার?

কে বলেছে বই লিখলে শ্লীল বই লিখতে হবে? মানুষের জীবন যাপন অশ্লীল, মানুষের চিন্তাভাবনা অশ্লীল , মানুষের বর্বরতা অশ্লীল,লোক ঠকানো, অপহরণ, ধর্ষণ, খুন সব অশ্লীল। অশ্লীল মানুষ নিয়ে লেখকরা অশ্লীল বই লিখতে পারবে না। আহ, আহলাদ দেখে বাঁচি না।

একটা অশ্লীল বই লেখার জন্য আমার হাত নিশপিশ করছে।

উল্লেখ্য,  বিএনপি-জামায়াতপন্থী আইনজীবী তুহিন মালিক, জামায়াত-শিবিরের ফেসবুক পেজ 'বাঁশেরকেল্লা', ফেসবুকে নয়ন চ্যাটার্জি নামক ইসলামধর্মভিত্তিক উগ্রবাদী আইডি এবং ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের দাবির মুখে একুশে গ্রন্থমেলার 'ব-দ্বীপ প্রকাশন'-এর স্টল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ।

তাদের দাবি ব-দ্বীপ প্রকাশন থেকে প্রকাশিত ‘ইসলাম ও বিতর্ক’ নামক বইয়ে ইসলাম ধর্মের নবী মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে কটাক্ষ করা হয়েছে। সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) শাহবাগ থানা পুলিশ ইসলাম ধর্মের অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে অমর একুশে গ্রন্থমেলার ব-দ্বীপ প্রকাশনের স্টলটি বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি ওই প্রকাশনীর বেশ কয়েকটি বইও জব্দ করে এবং অনুবাদক-প্রকাশককে গ্রেপ্তার করে।

এর আগে গত বছর (২০১৫) ধর্মভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের হুমকির মুখে ইরানী লেখক আলী দস্তির 'নবী মুহাম্মদের ২৩ বছর' বইটি প্রকাশের কারণে রোদেলা প্রকাশনীর স্টল বন্ধ করে দিয়েছিল বাংলা একাডেমি। তখন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান জানিয়েছিলেন তারা অভিযোগের ভিত্তিতে স্টল বন্ধ করেছেন, বই পড়েন নি।

আপনার মন্তব্য