আজ বৃহস্পতিবার, , ৩০ মার্চ ২০১৭ ইং

অস্ট্রেলিয়ার বইমেলায় হুমায়ূন আজাদ, অভিজিৎ ও দীপনকে স্মরণ

 প্রকাশিত: ২০১৬-০২-২৫ ১৭:২১:২১

শাখাওয়াৎ নয়ন:

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টায় ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে লেখালেখির জন্য জীবনদানকারী কবি ও লেখক হুমায়ূন আজাদ, মুক্তমনা লেখক অভিজিৎ রায় এবং প্রগতিশীল প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপনকে বিশেষভাবে স্মরণ করা হয়।  

এ সময় দেশি-বিদেশি অতিথি, স্থানীয় সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাসহ সিডনির নিকটবর্তী অন্যান্য শহরের প্রবাসী বাঙালিরা উপস্থিত ছিলেন।

এবার অস্ট্রেলিয়ায় একুশে একাডেমি আয়োজিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের অন্যতম উল্লেখযোগ্য দিক ছিলো, সিডনি থেকে বাংলা ভাষায় প্রকাশিত মাসিক পত্রিকা মুক্তমঞ্চ এর বুকস্টল। হুমায়ূন আজাদ, অভিজিৎ রায় এবং ফয়সল আরেফিন দীপনকে বিশেষভাবে স্মরণ ও শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের উদ্দেশে বাংলাদেশে মৌলবাদীদের হাতে নিহত কবি-লেখক-প্রকাশদের ছবি দিয়ে এই বুকস্টলটি সাজানো হয়েছিলো।

এখান থেকে ফয়সল আরেফিন দীপন এর সংক্ষিপ্ত জীবনী ‘রেখে গেলে মৃত্যুহীন প্রাণ’ বিতরণ এবং তাঁর ছবি সংবলিত চাবির রিং বিক্রি করা হয়। মাত্র ৩০ মিনিটের মধ্যেই সব ক’টি চাবির রিং বিক্রি হয়ে যায়।

মুক্তমঞ্চের সম্পাদক ওই স্টলের সত্ত্বাধিকারী আল-নোমান শামীম এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, যেখানেই থাকি বাংলার সূর্য সন্তানদের স্মরণ করবোই। বাংলাদেশে কবি-লেখক-প্রকাশক-ব্লগার হত্যাকাণ্ডের বিচার চাইবোই।            

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাই দাঁড়িয়ে ৩০ সেকেন্ড নীরবতা পালন করে হুমায়ূন আজাদ, অভিজিৎ রায় এবং ফয়সল আরেফিন দীপনসহ মৌলবাদীদের হাতে নিহত বাংলাদেশের সকল কবি-লেখক-ব্লগারদের স্মৃতির উদ্দেশে শ্রদ্ধা জানান।  

দিবসটি উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়ার মূলধারার অনেক গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক নেতার উপস্থিতি ছিল উল্লেখযোগ্য। সিডনির এশফিল্ড হেরিটেজ পার্কে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মৃতিসৌধে প্রভাত ফেরি এবং পুস্পস্তাবক অর্পনের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন শুরু হলেও, দিনভর শিশু-কিশোর-আবাল-বৃদ্ধ-বনিতার অংশগ্রহণে নানা রকম সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড ছিল চোখে পড়ার মতো। একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে বরাবরের মতো এ বছরও বাংলা ভাষায় ম্যাগাজিন প্রকাশ করা হয়েছে।      

এ ছাড়াও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে ওই স্থানে দিনব্যপী বইমেলা আয়োজন করা হয়।

একুশে একাডেমি অস্ট্রেলিয়া ওই স্থানে ১৭ বছর ধরে বইমেলা আয়োজন এবং নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান আয়োজন করছে। চয়ন প্রকাশন থেকে প্রকাশিত লেখক, কথাসাহিত্যিক আবু সাঈদ এর উপন্যাস ‘শ্রাবণ মেঘের রাতে’, অনন্যা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত যাদুশিল্পী এম এ জলিল এর কাব্যগ্রন্থ ‘গাও গেরামের কথা’ এবং বইপত্র প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত কবি ও কথাসাহিত্যিক শাফিন রাশেদ এর উপন্যাস ‘মেঘের দুপুর’ এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে।  

এ বছর অনুষ্ঠানে রেকর্ড জনসমাবেশ হয়েছে। বুকস্টলগুলো বই বিক্রিতে সন্তোষ প্রকাশ করেছে। ‘বর্ণমালা’ স্টল এর স্বত্ত্বাধিকারী রওনক হাসান এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আগে মানুষ ১০-২০ ডলারের বই কিনতো, এখন ৫০ থেকে ১০০ ডলারের বই কিনছে। 

আপনার মন্তব্য