আজ শনিবার, , ১৯ আগস্ট ২০১৭ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১২ আগস্ট, ২০১৭ ১১:১৪

যুক্তরাষ্ট্র-উত্তর কোরিয়া সম্পর্ক বিশ্বনেতাদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়াচ্ছে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিজস্ব অঞ্চলে কিছু হলে উত্তর কোরিয়াকে 'কঠিন, কঠিন ঝুঁকিতে' পড়তে হবে। পাশাপাশি, নিজের দেশের মানুষকে তার দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র 'সর্বোচ্চ নিরাপদ স্থান' বলে আশ্বস্ত করেছেন।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা ঠাণ্ডা সম্পর্ক দিনকে দিন আরও খারাপ হচ্ছে, যা নিয়ে উদ্বিগ্ন বিশ্ব নেতারা। সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার মিসাইল উৎক্ষেপণ পরীক্ষা সেই তপ্ত সম্পর্কের আগুনে ঘি ঢেলেছে।

আর এই মিসাইল পরীক্ষার পর যুক্তরাষ্ট্র ও সমমনা দেশ ও জাতিসংঘ থেকে যে ধরনের হুমকি আর সতর্ক বার্তা পাচ্ছে উত্তর কোরিয়া তা পরিস্থিতিকে আরও ঘোলাটে করে তুলেছে। পাশাপাশি, দু'দেশের মধ্যে এখন যে কথার লড়াই চলছে, তাতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিশ্বনেতারা।

তারা আশঙ্কা করছেন এই কথার লড়াই পরিস্থিতিকে আরও অশান্ত করে তুলবে। কিন্তু তাতে কোন কোন দেশের পক্ষ থেকে থামবার কোন লক্ষণ দেখছেন না বিশ্লেষকরা।

অন্যদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার ওপর সতর্ক বার্তা অব্যাহত রেখেছেন অপর দিকে উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের উপর সামরিক হামলা চালানোর ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছে।

এর আগে, যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী 'গুলি ভরা বন্দুকের মতই সতর্ক আছে' এমন মন্তব্য করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, যার প্রতিক্রিয়ায় উত্তর কোরিয়া অভিযোগ করে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প পরিস্থিতিকে সম্ভব্য পারমানবিক যুদ্ধের দিকে ধাবিত করছে।

ট্রাম্প বলেন, 'আমরা খুব সতর্কতার সাথে পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছি। আমি আশা করছি উত্তর কোরিয়া পরিস্থিতির গুরুত্ব সঠিক ভাবে অনুধাবন করতে পেরেছে।'

অন্যদিকে, এই দুই দেশের এই কথার লড়াইয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করতে শুরু করেছেন বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলোর নেতারা। যার মধ্যে রয়েছে রাশিয়া চীন ও জার্মানি-সহ বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলো।

রাশিয়া মনে করছে, এর ফলে পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যাওয়ার মারাত্মক ঝুঁকি তৈয়ার হয়েছে। জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল বলছেন, তিনি মনে করেন যে তীব্র কথার লড়াই চলছে সেটি তার দৃষ্টিতে ভুল জবাব। আর, উভয় পক্ষকেই শব্দ এবং বাক্য চয়নের ব্যাপারে সতর্ক হবার আহ্বান জানিয়েছে চীন। সূত্র: বিবিসি

আপনার মন্তব্য

আলোচিত