আজ বৃহস্পতিবার, , ২৩ নভেম্বর ২০১৭ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ১৩:৩২

মুসলিম বা খ্রিস্টান সন্ত্রাসী বলে কিছু নেই : দালাই লামা

মুসলিম বা খ্রিষ্টান সন্ত্রাসী বলে কিছু নেই। কারণ, কেউ যখন সন্ত্রাসকে আঁকড়ে ধরে, তখন তার কোনো ধর্ম থাকে না। যখন কেউ সন্ত্রাসী হয়ে যায়, সেই মুহূর্ত থেকে সে মুসলিম, খ্রিষ্টান বা অন্য যে ধর্মেরও হোক না কেন, তা থেকে বেরিয়ে আসে।

স্থানীয় সময় বুধবার ভারতের মনিপুর রাজ্যের রাজধানী ইমফলে প্রথম সফরের দ্বিতীয় দিনে এক বক্তব্যে দালাই লামা এই মন্তব্য করেন।

মনিপুরে গণসংবর্ধনায় ৮২ বছর বয়সী দালাই লামা বলেন, সন্ত্রাসী হওয়ামাত্রই লোকজন মুসলিম, খ্রিস্টান বা অন্য ধর্মীয় পরিচয় হারায়।

বক্তব্যে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার নিন্দা জানিয়ে দালাই লামা বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর যে সহিংসতা চলছে তা খুবই ‘দুর্ভাগ্যজনক’।

ভারতের বহু মত-পথের বিষয়ে বলতে গিয়ে শান্তিতে নোবেলজয়ী দালাই লামা বলেন, ‘ঐতিহাসিকভাবে ভারত বহু ধর্মের জাতি। তাই ভিন্ন ভিন্ন জনগোষ্ঠী ও ভিন্ন সম্প্রদায়ের আলাদা বিশ্বাসের প্রতি তাদের (ভারতীয়) সম্মান দেখাতে হবে।’

নিজ জন্মভূমি তিব্বত থেকে পালিয়ে ১৯৫৯ সালে ভারতে আশ্রয় নেন দালাই লামা। সেই থেকে চীনের কমিউনিস্ট শাসকগোষ্ঠীর চক্ষুশূল এই আধ্যাত্মিক নেতা।

ভারত, চীন ও ভুটান সীমান্তের বিতর্কিত দোকলাম মালভূমি নিয়ে সম্প্রতি ভারত ও চীনের মধ্যে যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে, এ বিষয়ে দালাই লামা বলেন, ‘ভারত ও চীন দুটি দেশই বিশাল শক্তিধর। একে অন্যকে হারানোর ক্ষমতা নেই। দুটি দেশকেই একে অপরের পাশে থাকতে হবে। সীমান্তে কিছু সমস্যা থাকবে। কিন্তু আমি মনে করি না এগুলো কখনো গুরুতর হয়ে উঠবে।’

এর আগে দিনের শুরুতে দালাই লামা বলেন, ভারত, জাপান ও চীন মিলে কোনো এক দিন এশিয়ান ইউনিয়ন হবে। তিনি বলেন, ‘আমি ইউরোপীয় ইউনিয়ন, আফ্রিকান ইউনিয়ন ও মালয়েশিয়া ইউনিয়নের ভক্ত। আমি স্বপ্ন দেখি, ভারত, জাপান ও চীন মিলে একদিন এশিয়ান ইউনিয়ন হবে।’

আপনার মন্তব্য

আলোচিত