আজ শুক্রবার, , ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১৬ আগস্ট, ২০১৭ ১১:২৭

যুদ্ধাপরাধী সুবহানের আপিল শুনানি ১৬ অক্টোবর

একাত্তরের মানবতাবিরোধি মামলায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির আবদুস সুবহানের আপিল শুনানির জন্য ১৬ অক্টোবর দিন রেখেছেন সর্বোচ্চ আদালত। বুধবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বেঞ্চ শুনানির এই দিন ঠিক করে দেয়।

বেঞ্চের অপর দুই বিচারক হলেন বিচারপতি মো. সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার। শুনানির জন্য রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষকে দুই সপ্তাহের মধ্যে আপিলের সার সংক্ষেপ জমা দিতে বলেছেন আদালত। সুবহানের পক্ষে আদালতে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদিন তুহিন; রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় পানায় হত্যা, অপহরণ ও নির্যাতনের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল সুবহানকে সর্বোচ্চ শাস্তি প্রাণদণ্ড দেয়।

প্রসিকিউশনের আনা ১ নম্বর অভিযোগে ঈশ্বরদী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে বের করে ২০ জনকে হত্যা; ৪ নম্বর অভিযোগে সাহাপুর গ্রামে ছয়জনকে হত্যা এবং ৬ নম্বর অভিযোগে সুজানগর থানার ১৫টি গ্রামে কয়েকশ মানুষকে হত্যার দায়ে সুবহানকে দেওয়া হয় মৃত্যুদণ্ড।

২ নম্বর অভিযোগে পাকশী ইউনিয়নের যুক্তিতলা গ্রামে পাঁচজনকে হত্যা এবং ৭ নম্বর অভিযোগে সদর থানার ভাড়ারা ও দেবোত্তর গ্রামে অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় সংশ্লিষ্টতা প্রমাণিত হওয়ায় তাকে দেওয়া হয় আমৃত্যু কারাদণ্ড।

এছাড়া ৩ নম্বর অভিযোগে ঈশ্বরদীর অরণখোলা গ্রামে কয়েকজনকে অপহরণ ও আটকে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় সংশ্লিষ্টতা প্রমাণিত হওয়ায় সুবহানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

প্রসিকিউশন ৫, ৮ ও ৯ নম্বর অভিযোগ প্রমাণ করতে ব্যর্থ হওয়ায় এসব অভিযোগ থেকে সুবহানকে খালাস দেওয়া হয়।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে ওই বছরের ১৮ মার্চ আপিল করেন সুবহান। বুধবার শুনানির তারিখ নির্ধারণের জন্য তা আপিল বিভাগে ওঠে।

যুদ্ধাপরাধ মামলার তদন্ত চলার মধ্যেই ২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল প্লাজা থেকে সুবহানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তখন থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত