আজ বৃহস্পতিবার, , ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:৩৭

গোগালীছড়া নদীর ইজারা বাতিলের দাবি

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া ও জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন এলাকা হয়ে প্রবহমান গোগালীছড়া নদীর ইজারা বাতিলের দাবিতে নাগরিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) বিকেলে জুড়ী উপজেলার ভূঁয়াই বাজারে গ্রামীণ এ নাগরিক সভা আয়োজন করে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও ওয়াটার কিপার্স বাংলাদেশ।

নাগরিক সভায় বক্তারা বলেন, গোগালীছড়া প্রবহমান নদী। অথচ, এ নদীকে বদ্ধ জলমহাল দেখিয়ে প্রশাসন ইজারা দিয়ে ফেলেছে। এটা প্রশাসনের বড় ধরনের দুর্নীতি। আইনের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে এটা করা হয়েছে। গোগালীছড়া অবক্ষয়িত কোনো জলাশয় নয়। প্রশাসনের যে কর্মকর্তা নদীটিকে বদ্ধ জলমহাল করার প্রস্তাব পাঠিয়েছিলেন তাঁর শাস্তি হওয়া দরকার।

বিকেল সাড়ে পাঁচটায় শাহপুর গ্রামের কৃষক আরজিদ আলীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সদস্য শারমিন মুর্শেদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বাপার কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরীফ জামিল, বাপার সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়ক আবদুল করিম কিম, জুড়ী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর রায় চৌধুরী মনি, জায়ফরনগর ইউপির চেয়ারম্যান হাজী মাছুম রেজা, বাপার সদস্য এডভোকেট সাব্বির আহমদ, শ্যামল সিংহ, বদরুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, প্রবহমান নদী গোগালীছড়াকে বদ্ধ জলমহাল হিসেবে ইজারা দেওয়া প্রশাসনের বড় দুর্নীতি। এটা তাদের অজ্ঞতা। আইনের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে প্রশাসন এ কাজ করেছে। অথচ, গোগালীছড়া নদীর পানি দিয়ে হাকালুকি হাওরের হাজার-হাজার একর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়। ইজারার ফলে সেচ ব্যাহত হবে। সাধারণ জেলেরা মাছ ধরার অধিকার হারিয়েছেন।

তারা গোগালীছড়া নদীর ইজারা বাতিলের দাবি জানান।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত