আজ বুধবার, , ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি

১০ জানুয়ারী, ২০১৭ ২০:২৭

বিশ্বনাথে মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয় দখল করে দোকান নির্মাণ, স্মারকলিপি

বিশ্বনাথ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয় দখল করে বহুতল বিশিষ্ট ভবন  নির্মাণের অভিযোগ এনে ইউএনও বরাবরে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। সাবেক কমান্ডার আনোয়ার হোসেন, ডেপুটি কমান্ডার মুনির আহমদ, বর্তমান  কমান্ডার ওয়াহিদ আলী, ডেপুটি কমান্ডার রণজিৎ কুমার ধরকে অভিযুক্ত করে এ স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১০জানুয়ারি) বিকেলে ২৫জন মুক্তিযোদ্ধা স্বাক্ষরিত এ স্মারকলিপি দিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আজিজুর রহমান এবং সাবেক তথ্য ও প্রচার কমান্ডার আব্দুল মান্নান।

এপ্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অমিতাভ পরাগ তালুকদার বলেছেন উপজেলা সহকারী (ভূমি) কমিশন’র মাধ্যমে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৯৯৬ সালে ‘বিশ্বনাথ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ’র কার্যালয় স্থাপনের জন্যে মুক্তিযোদ্ধাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৯৯৯ সালের ৩ অক্টোবর (৮৫৬৭/৯৯ইং দলিল মুলে) নতুন বাজারে বাসীয় নদীর চরে আড়াই শতক ভূমি স্থায়ী বন্দবস্ত দেওয়া হয়। তাদের অভিযোগ সাবেক কমান্ডার আনোয়ার হোসেন, ডেপুটি কমান্ডার মুনির আহমদ, বর্তমান  কমান্ডার ওয়াহিদ আলী, ডেপুটি কমান্ডার রণজিৎ কুমার ধর মাহতাবপুরের নজরুল ইসলাম ও তবলপুরের ছৈফ উল্লার যোগসাজশে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের জায়গা দখল করে বহুতল বিশিষ্ট বাণিজ্যিক দোকান কোঠা নির্মাণসহ বেআইনিভাবে লক্ষ লক্ষ টাকার বিনিময়ে বিভিন্নজনকে লীজও দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু তিনতলা বিশিষ্ট বহুতল দোকান কোঠা নির্মাণ করা হলেও সেখানে মুক্তিযুদ্ধদের কোন কার্যালয় স্থাপন করা হয়নি।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার ওয়াহিদ আলী দখলের অভিযোগকে মিথ্যা দাবি করে তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের জায়গা যেখানে ছিল, সেখানেই আছে। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নির্বাচিত কমিটির নেতৃবৃন্দের মতামতের ভিত্তিতেই নির্মাণকাজ চলছে।   

আপনার মন্তব্য

আলোচিত