আজ রবিবার, , ২০ আগস্ট ২০১৭ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ জুন, ২০১৭ ১৬:২৯

সিলেটের ডাক’র ডিক্লারেশন বাতিল

বিতর্কিত শিল্পপতি রাগীব আলীর মালিকানাধীন পত্রিকা সিলেটের ডাক'র ডিক্লারেশন (প্রকাশনার অনুমোদন) বাতিল করেছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) ডিক্লারেশন বাতিল করা হয় বলে সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার। রোববার (১৮জুন) এই নোটিশ সিলেটের ডাক কর্তৃপক্ষ কাছে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পত্রিকাটির প্রকাশক রাগীব আলী আদালতের রায়ে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় আইন মোতাবেক সিলেটের ডাক'র ডিক্লারেশন বাতিল করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

ডিক্লারেশন বাতিলের ফলে সিলেটের বহুল পঠিত এই পত্রিকাটি আর প্রকাশ করা যাবে না বলেও জানান জেলা প্রকাশক।

প্রিন্টিং প্রেস অ্যান্ড পাবলিকেশন ডিক্লারেশন অ্যান্ড রেজিস্ট্রেশন অ্যাক্ট ১৯৭৩ এর সেকশন ২০-এ উল্লেখ রয়েছে, প্রকাশক যদি কোন মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী হন তবে সে পত্রিকার ডিক্লারেশন বাতিল হবে।

এ ব্যাপারে সিলেটের ডাক'র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মো. আব্দুল হান্নান ও নির্বাহী সম্পাদক আব্দুল হামিদ মানিকের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তারা কল রিসিভ করেননি।

সিলেটের ডাকের প্রকাশক ও সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি রাগীব তিন মামলায় ভিন্ন ভিন্ন মেয়াদে দন্ডিত হয়ে বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। পত্রিকাটির সম্পাদকের দায়িত্ব থাকা রাগীব আলীর ছেলে আব্দুল হাইও সিলেট কারাগারে দণ্ড ভোগ করছেন।

সিলেটের হাজার কোটি টাকার দেবোত্তর সম্পত্তি বন্দোবস্তের নামে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি মামলার রায়ে গত ২ ফেব্রুয়ারি রাগিব আলী ও তার ছেলেকে ১৪ বছরের কারাদন্ডাদেশ দেন আদালত।

এছাড়াও প্রতারণার মাধ্যমে ওই বাগান দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের মাধ্যমে হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় গত ৬ এপ্রিল রাগীব আলীর ১৪ বছর, ছেলে আবদুল হাই, জামাতা আবদুল কাদির, মেয়ে রুজিনা কাদির ও নিকটাত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদকে ১৬ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত।

এছাড়াও মামলায় আদালত থেকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ইস্যুর পর পলাতক থাকাবস্থায় পত্রিকা প্রকাশের কারণে রাগীব আলী ও তার ছেলের বিরুদ্ধে দায়ের করা অন্য একটি মামলার রায়ে রাগীব আলী ও তার ছেলেকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন মহানগর মুখ্য হাকিমের আদালত। বর্তমানে এসব মামলায় কারাগারে সাজা ভোগ করছেন রাগীব আলী ও তার ছেলে আব্দুল হাই।

 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত