আজ সোমবার, , ২১ আগস্ট ২০১৭ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৭ আগস্ট, ২০১৭ ২২:৫৪

সোবহানীঘাটে শিশু ক্লিনিক ও জালালাবাদ কলেজে দুর্বৃত্তদের হামলা ও ভাঙচুর

সোমবার (৭ আগস্ট) রাতে নগরীর সোবহানীঘাটে অবস্থিত শিশু ক্লিনিক ও জালালাবাদ কলেজে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ জানিয়েছে শিশু ক্লিনিকে ও জালালাবাদ কলেজের হামলাকারীরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

জানা যায়, দুপুরে ছাত্রলীগের ২ নেতাকর্মীর উপর ছাত্রশিবিরের হামলার জের ধরে রাতে এ ঘটনা ঘটায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

শিশু হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনোয়ার হোসেন জানান, দুপুরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হামলার ঘটনা শিশু হাসপাতালের সিসিটিভিতে ধরা পরে। সে ফুটেজ পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ায় ছাত্রলীগ রাতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটায়।

এসময় হামলাকারীরা হাসপাতালের সামনের একটি ফার্মেসি, একটি কক্ষ ও একটি এ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করে।

এদিকে ক্লিনিকের পার্শ্ববর্তী জালালাবাদ কলেজেও কলেজের প্রশাসনিক বিভাগে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে।

কলেজের নৈশ প্রহরী হায়দার আলী জানান, রাত ৮ টার দিকে একদল যুবক 'জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু' শ্লোগান দিয়ে কলেজে হামলা ও ভাঙচুর চালায়।

সিলেট কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গৌসুল হোসেন জানিয়েছেন, দুপুরে ছাত্রলীগের ২ কর্মীকে আহতের জের ধরে রাতে ছাত্রলীগ এ হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে।

তবে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম তুষার জানান, রাতে এ হামলার সাথে ছাত্রলীগের কোন সম্পৃক্ততা নেই।

প্রসঙ্গত, সোমবার বেলা ১টার দিকে নগরীর সোবহানীঘাটে ছাত্রলীগের দুইকর্মীকে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। হামলাকারীরা ছাত্রশিবিরের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত বলে দাবি করেছে ছাত্রলীগ।

আহতরা হলেন- সিলেট সদর উপজেলার পীরপুর টুকেরবাজারের নূরুল আমিনের ছেলে শাহীন আহমদ (২২) ও নগরীর উপশহরের জালাল উদ্দিনের ছেলে, জালালাবাদ কলেজের ছাত্র আবুল কালাম আসিফ (১৮)। আসিফ। আহতদের মধ্যে শাহীন মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী ও আসিফ ছাত্রলীগের দর্শন দেউড়ি গ্রুপের কর্মী বলে জানা গেছে।

আহতদের মধ্যে শাহীনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত