আজ সোমবার, , ২১ আগস্ট ২০১৭ ইং

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি

১২ আগস্ট, ২০১৭ ১৬:৩৫

ব্যাংক কর্মকর্তার আত্মহত্যা: আসামি সেলিম রিমান্ড শেষে কারাগারে, জামিনে স্বপ্না

যমুনা ব্যাংক বিয়ানীবাজার শাখা ব্যবস্থাপক সজল কান্তি দাসকে আত্মহত্যা প্ররোচনায় অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় আসামি ব্যবসায়ী আলী আহমদ সেলিমকে তিন দিনের রিমান্ড শেষে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এ মামলার অপর আসামি ব্যবসায়ী সেলিমের স্ত্রী ও যমুনা ব্যাংক সিলেট বন্দর বাজার শাখার ব্যাংক কর্মকর্তা কামরুন নাহার স্বপ্নাকে জামিন দিয়েছেন আদালত।

শনিবার (১২ আগস্ট) আলী আহমদ সেলিমকে কারাগারে পাঠান আদালত। এরআগে, গত বৃহস্পতিবার আদালত স্বপ্নার জামিন মঞ্জুর করেন।

গত ৩১ জুলাই যমুনা ব্যাংকের ব্যবস্থাপক সজল কান্তি দাসের ঝুলন্ত লাশ পুলিশ বিয়ানীবাজারের সিটি মার্কেটের আল আরাফাহ ব্যাংক ভবন থেকে উদ্ধার করে। এসময় পুলিশ কক্ষের ভেতর থেকে চিরকুট ও ডায়েরি উদ্ধার করে। এ ডায়েরি ব্যাংক কর্মকর্তা সজল কান্তি দাসের ছিল। ডায়েরি থেকে পাওয়া তথ্যে ব্যাংক সংশ্লিষ্ট বিষয়ে (ঋণ সংক্রান্ত) ব্যবসায়ী আলী আহমদ সেলিমের হাত রয়েছে।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার ব্যবসায়ী আলী আহমদ সেলিমের স্ত্রী ব্যাংক কর্মকর্তা কামরুন নাহার স্বপ্নাকে আদালত অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছেন। কামরুন নাহার স্বপ্নার আইনজীবী জামিন আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

ব্যবসায়ী সেলিমকে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ গত বুধবার রিমান্ড এনে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, রিমান্ডে অনেক গুরুত্বপূর্ণ পেয়েছি। এসব তথ্য যাচাই বাচাই চলছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত