আজ শুক্রবার, , ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং

সিলেটটুডে ডেস্ক

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২৩:৩৪

মৃত্যুবার্ষিকীতে ভক্তদের শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় বাউল সম্রাটকে স্মরণ

ভক্তদের শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় মঙ্গলবার দিনব্যাপী নানান অনুষ্ঠানে বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম এর ৮ম মৃত্যু বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। সকাল ৮ টায় শাহ আব্দুল করিমের সমাধিতে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলির মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল ১১টায় শাহ আব্দুল করিম স্মৃতি ও গবেষনা পরিষদের উদ্যোগে দিরাই উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পরিষদের সভাপতি ও দিরাই প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান লিটনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আবু হানিফ চৌধুরীর পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ভাটি বাংলা বাউল একাডেমীর সভাপতি শাহ আব্দুল তোয়াহেদ, দিরাই উপজেলা প্রকৌশলী ইফতেখার হোসেন,  প্রধান শিক্ষক রতি রঞ্জন দাস, জাগো দিরাইয়ের সভাপতি আবুল কাসেম চৌধুরী, দিরাই প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক ইমরান হোসাইন, জাতীয় যুব পুরস্কার প্রাপ্ত  মোহন চৌধুরী, জাইকা প্রতিনিধি আবুল হোসেন ভুইয়া,দৈনিক দিরাই শাল্লা ডটকম সম্পাদক আবুল হোসাইন, সাংবাদিক প্রশান্ত সাগর দাস, কন্ঠ শিল্পী দূলালী রানী তালুকদার, হাসান চৌধুরী, মাহবুব হোসেন,  হেলু মিয়া।

সন্ধ্যার পর থেকে  রাতভর চলে বাউল গানের আসর,  এতে দেশের বিখ্যাত বাউল ও শাহ আব্দুল করিম ভক্তরা তার লেখা ও সুর দেওয়া সংগীত পরিবেশন করেন।  

উল্লেখ্য, ২০০৯সালের ১২ সেপ্টেম্বর  বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম মৃত্যুবরণ করেন। পৃথক আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, দেশ বিদেশের অসংখ্য ভক্তের কাছে শাহ আব্দুল করিম ছিলেন পীর-মুর্শিদ। ভক্তরা তার মৃত্যুর দিনটিকে সম্মানের সহিত পালন করে থাকে। সমাজের বঞ্চিত অবহেলিত মানুষের দুঃখ দুর্দশার চিত্র তার  গানের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।। তাঁর সৃষ্টিকে শুধুই স্মরণই নয় লালন, পালন ও বুকে ধারণ করে সঠিক পৃষ্ঠপোষকতার  মাধ্যমে জাগিয়ে রাখতে হবে। শাহ আব্দুল করিম এর সৃষ্টিকে বাঁচিয়ে রাখতে একটি মিউজিয়াম ও একাডেমি স্থাপন বর্তমান সময়ের দাবি। মানুষ হয়ে মানুষকে কষ্ট না দেওয়াটাই মানুষের কাজ এ সত্যই শাহ আবদুল করিম লেখার মাধ্যমেও গানের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠা করেছেন। তার লেখা ও গান ছিলো শোষকের বিরুদ্ধে হুংকার, তাতে অন্যায়ের বিরোদ্ধে বিপ্লবের ডাক। প্রেম দিয়ে শত্রুকে জয় করা এবং সম্প্রীতির  শিক্ষা দিয়েছেন শাহ আবদুল করিম।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত