আজ সোমবার, , ২০ নভেম্বর ২০১৭ ইং

কুলাউড়া প্রতিনিধি

১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ২২:৩৭

কুলাউড়া স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি নিয়ে দু’গ্রুপের শোডাউনে উত্তেজনা

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের পাল্টাপাল্টি কমিটি গঠন নিয়ে দু’গ্রুপের শোডাউন হলে শহরজুড়ে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। শহরজুড়ে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়।

জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক অনুমোদিত নতুন কমিটি ১৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিকেলে শহরে অনন্দ মিছিল দেয়াকে কেন্দ্র করে এ উত্তেজনার রূপ নেয়।

দলীয় ও নেতাকর্মী সূত্রে জানা যায়, গত ২০ এপ্রিল কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্থ মো. ছয়ফুর রহমান ছয়ফুলকে সভাপতি ও মাহবুবুর রহমান মান্নাকে সাধারণ সম্পাদক করে তিনি ব্যক্তিগত ফেসকবুক আইডিতে একটি স্ট্যাটাসে বলেন, “বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ কুলাউড়া উপজেলা শাখার নব গঠিত কমিটির সভাপতি মোঃ ছয়ফুর রহমান ছয়ফুল, সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মান্নাকে অভিনন্দন। স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি অ্যাড মোল্লা মোঃ আবু কাওছার এবং সাধারন সম্পাদক পংকজ নাথ এমপির নেতৃত্ত্বে সারা বাংলাদেশে স্বেচ্ছাসেবক লীগ একটি গতিশীল সংগঠন হিসাবে এগিয়ে যাচ্ছে তার ধারাবাহিকতায় কুলাউড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন কমিটি এগিয়ে যাবে বলে আমার বিশ্বাস।”

এনিয়ে জেলা কমিটিসহ স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক পতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। পরবর্তিতে গত বুধবার মৌলভীবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক রাব্বী’র স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে মোছাদ্দিক আহমদ নোমানকে সভাপতি ও এহসান আহমদ টিপুকে সাধারণ সম্পাদক করে ১১ সদস্যের একটি কমিটি ঘোষনা করা হয়। কিন্তু জেলা সভাপতি হাজী মো. নাজমুল হক তার নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে বলেন, “কুলাউড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের নতুন কমিটির বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।”

এরপর বুধবার রাত থেকে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের দু’গ্রুপের শোডাউনে শহরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক ঘোষিত কমিটির নেতাকর্মীরা আনন্দমিছিলের জন্য জড়ো হন। অপরদিকে সাইফুল ও মান্না কমিটি পাল্টা মিছিল দেয়ার জন্য চৌমুহনীস্থ বশির প্লাজা সম্মুখে অবস্থান নেয়। দু’গ্রুপের পাল্টা শোডাউনকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করে। দু’পক্ষের মিছিল নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করার চেষ্টা করলে পুলিশ ও র‌্যাব তাদেরকে আটকিয়ে দেয়। পুলিশি বাধার কারনে দু’গ্রুপ পৃথক স্থানে সংক্ষিপ্ত পথসভা করে।

এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. নাজমুল হক মুঠোফোনে বলেন, গতকাল জেলা সাধারণ সম্পাদক যে কমিটি অনুমোদন দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ অগঠনতান্ত্রিক এবং সে ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। সভাপতি বা সম্পাদক কেউ এককভাবে কোন কমিটি ঘোষনা দিতে পারেন না। এর আগে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক তার ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে কমিটি ঘোষনা দিয়েছেন তা কি বৈধ এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, স্ট্যাসের মাধ্যমে কোন কমিটি ঘোষনা দেয়ার নিয়ম নেই। এবং সেটিও সম্পুর্ণ অগঠনতান্ত্রিক। আমি এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় সভাপতি সম্পাদককে অবগত করেছি।

নব-ঘোষিত কমিটি সম্পূর্ণ অগঠনতান্ত্রিক বলে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি যে বক্তব্য দিয়েছেন সে ব্যাপারে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক রাব্বী বলেন, এটা আমাদের অভ্যন্তরিন বিষয়। বিষয়টি গঠনতান্ত্রিক কি না তা খতিয়ে দেখছি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত