আজ সোমবার, , ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং

চুনারুঘাট প্রতিনিধি

২৩ নভেম্বর, ২০১৭ ১২:৪৭

চুনারুঘাটে গাছ চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে হত্যা: মামলা দায়ের

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে নজির মিয়া নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে গাছ চুরির অভিযোগ এনে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। নিহত নজির মিয়া উপজেলার পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের নয়ানী গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে।

২১ নভেম্বর (মঙ্গলবার) বিকাল ৫ টায় চুনারুঘাট থানা পুলিশ নিহত নজিরের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছেন। এব্যাপারে নিহতের ভাতিজা সুজন মিয়া বাদী হয়ে চুনারুঘাট বেগম খান চাবাগানের ডেপুটি ম্যানেজার অরুণ চাকমা ও হেড টিলা বাবু স্বপন কুমারসহ ২৫ জনকে আসামী করে হবিগঞ্জ কোটে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, গত ১৩ নভেম্বর (সোমবার) সকালে বেগমখান চা বাগানের নাচঘরের সামনে উৎ পেতে থাকে আসামীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে নজির মিয়ার উপর অতর্কিত হামলা চালালে নজির মারাত্মক আহত হয়। এসময় তার চিৎকারে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার নজির মিয়ার মৃত্যু হয়। নিহত নজির মিয়ার মরদেহ মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) সকালে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে নিয়ে আসা হয়। চুনারুঘাট থানা পুলিশ নিহত নজিরের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছেন।

এ ব্যাপারে মামলার আসামী বেগমখান চা বাগানের ডেপুটি ম্যানেজার অরুণ চাকমা বলেন, ঘটনার দিন আমি ছুটিতে ছিলাম, পরে এসে শুনেছি একজন গাছ চোর ধরে বাগানের লোকজন পিটিয়েছেন।

চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে এম আজমিরুজ্জামান জানান, ১৩ নভেম্বর চোরকে গণপিটুনি দেয়া হয়েছে মর্মে বাগান কর্তৃপক্ষ চুনারুঘাট থানায় একটি জিডি করা হয়েছিল। এব্যাপারে নয়ানী গ্রামের প্রাক্তন মেম্বার সৈয়দ আলী বলেছেন, নজির মিয়া একজন ভাল টিউবওয়েল মিস্ত্রী ছিল ,তাকে ষড়যন্ত্র মূলক হত্যা করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত