আজ বৃহস্পতিবার, , ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং

তসলিমা নাসরিন

২০ নভেম্বর, ২০১৬ ২১:৪১

প্রগতিশীল মানুষ সকল অন্যায়ের প্রতিবাদ করে

বাংলাদেশের হিন্দুরা যেহেতু অত্যাচারিত, তাদের পক্ষে আমি দাঁড়িয়েছি, প্রচুর লিখেছি, এখনো লিখছি। শুধু হিন্দু নয়, অত্যাচারিত যে কোনো মানুষের পক্ষে আমি দাঁড়াই। সে মুসলমান হোক, হিন্দু হোক, খ্রিস্টান হোক, বৌদ্ধ হোক, ইহুদি হোক, নাস্তিক হোক।

কিছু মুসলমান মৌলবাদি, আমরা জানি, শুধু মুসলমান অত্যাচারিত হলে কান্নাকাটি করে। অবশ্য সে মুসলমান যদি অমুসলমান দ্বারা অত্যাচারিত হয়, তবেই। মুসলমান যখন মুসলমানদের মারে, তারা দেখেও না দেখার ভান করে। তাদের যত অভিযোগ, বিধর্মীদের বিরুদ্ধেই। একই রকম কিন্তু হিন্দুরাও। হিন্দুকে অহিন্দু মারলেই অভিযোগ ওঠে বেশি।

বাংলাদেশের হিন্দুরা শাস্ত্র অনুযায়ী চলে। শাস্ত্র ভয়ঙ্কর রকম নারী বিরোধী। হিন্দু মেয়েরা এই শাস্ত্রের কারণে মানবাধিকার থেকে বঞ্চিত। আমি খুব বেশি প্রগতিশীল হিন্দুকে দেখিনি যারা শাস্ত্রের বদলে সভ্য আইন চায়, যারা সমানাধিকারের ভিত্তিতে অভিন্ন দেওয়ানী বিধি তৈরি করার জন্য আন্দোলন করে। শরিয়া আইনের বিরুদ্ধে অবশ্য প্রগতিশীল হিন্দু প্রগতিশীল মুসলমানদের মতোই মুখর।

গত দু'দিন লক্ষ করছি, নামে এবং ছদ্মনামে বাংলাদেশের বেশ কিছু হিন্দু কটাক্ষ করছে বাংলাদেশের সেই সব মুসলমানকে যারা মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের হত্যাকাণ্ডে শোক করে, এবং ঘৃণা ছুড়ছে সেই সব মুসলমানের দিকে যারা দেশের হিন্দু মরলে চুপ থাকে, কিন্তু মায়ানমারে মুসলমান মরলে প্রতিবাদ করে।

যে মুসলমানরা দেশের হিন্দু মরলে চুপ থাকে, জানি, তারা মন্দ লোক, তারা সাম্প্রদায়িক, কিন্তু আমি বলতে চাই,তুমি যদি অত অসাম্প্রদায়িক, তুমি যদি অত ভাল, তাহলে তুমি কি হিন্দুদের বিরুদ্ধে হওয়া অন্যায়ের প্রতিবাদ করার পাশাপাশি মুসলমানদের বিরুদ্ধে গুজরাটে, গাজায়, মায়ানমারে হওয়া অন্যায়ের বিরুদ্ধে কখনো প্রতিবাদ করেছো? নাকি মুসলমান ভুল করলেই শুধু সে ভুলটা ধরতে জানো?

একজন প্রগতিশীল মানুষ কিন্তু দেশে বিদেশে যেখানেই অন্যায় ঘটুক না কেন, প্রতিবাদ করে। শুধু মুসলমান না হয়ে থেকে যেমন মানুষ হওয়া জরুরি, শুধু হিন্দু হয়ে না থেকেও মানুষ হওয়া জরুরি। ভিকটিম হলেই সাত খুন মাফ হয়ে যায় না।
[ফেসবুক থেকে]

আপনার মন্তব্য

আলোচিত