আজ সোমবার, , ২০ নভেম্বর ২০১৭ ইং

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৬ ১৯:৫৩

সাঈদীর ছেলের হাত থেকেও সম্মাননা নিতে হয় মুক্তিযোদ্ধাদের!

পিরোজপুরের জিয়ানগরে মহান বিজয় দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসেইন সাঈদীর ছেলে মাসুদ সাঈদী। শুক্রবার (১৬ ডিসেম্বর) জিয়ানগরে বিজয় দিবসের প্যারেডে সালাম গ্রহণ করেন মাসুদ। এমনকি মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে সম্মাননা এবং পুরষ্কারও তুলে দেন এই যুদ্ধাপরাধীপুত্র। পুরষ্কারপ্রাপ্তদের মধ্যে সাঈদীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ মামলার বাদীও রয়েছেন।

মাসুদ জিয়ানগর উপজেলার চেয়ারম্যান।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলছে ব্যাপক সমালোচনা। বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে যুদ্ধাপরাধীপুত্রের অতিথি হওয়া ও মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেওয়াকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধকে অপমান বলে আখ্যায়িত করেছেন সমালোচনাকারীরা।

শুক্রবার বিজয় দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে অংশ নিয়ে সেসব ছবি নিজের ফেসবুকে তুলে দিয়েছেন মাসুদ সাঈদী তার কয়েকটি ছবিতে দেখা যায়, মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে সম্মাননা পুরষ্কার তুলে দিচ্ছেন মাসুদ সাঈদী।

এসব ছবি ফেসবুকে যুক্ত করে মাসুদ সাঈদী লিখেছেন- 'মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জিয়ানগর উপজেলা কমান্ড কাউন্সিলের সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠান।

পুরষ্কার নিচ্ছেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বর্তমান উপজেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব বেলায়েত হোসেন, বর্তমান উপজেলা ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বপন কুমার রায়, সাবেক কমান্ডার মাহবুবুল আলম হাওলাদার (আমার আব্বার মামলার বাদী ও প্রথম স্বাক্ষী), মুক্তিযোদ্ধা খলিলুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার ফকির।'

মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা দেওয়া ছাড়াও উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত বিজয় র‌্যালিতেও নেতৃত্ব দিতে দেখা যায় তাকে। বিজয় দিবসের কুচকাওয়াজে সালামও গ্রহণ করেন সাঈদীপুত্র। শুধু তাই নয়, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে উপহার দেয়া হয় বিজয়ের শুভেচ্ছা স্মারক। 

এ ঘটনায় হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়ে একাত্তরের শহীদ আলতাফ মাহমুদের কন্যা শাওন মাহমুদ ফেসবুকে লিখেছেন, 'বিজয়ের ৪৬তম বছরের প্রথম সকাল হতবাক করেছে। রাজাকার পুত্র এবং মুক্তিযোদ্ধারা একসাথে বিজয় দিবস উদযাপন করছে। আর আমরা দেখছি। কি সুন্দর সকাল হওয়ার কথা ছিল আজ, তাই না!!'

রেদওয়ান আহমদ নামের এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, 'মনে হয় যেন মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ, চেতনা এগুলো স্রেফ কাগুজে শব্দ... মনে হয় প্রচন্ড তাচ্ছিল্যের সাথে কেউ পৈশাচিকভাবে হাসছে মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদদের উদ্দেশ্যে...
মনে হয় আমরা হুদাই দেশ দেশ করে মরছি...।'

সমুদ্র সৈকত নামের আরেকজন লিখেছেন, 'রাজাকার সাঈদী'র ছেলে মাসুদ সাঈদী'র হাত থেকে বিজয় দিবসে মুক্তিযোদ্ধারা সম্মাননা ও পুরস্কার নিয়েছেন! এর চেয়ে অপমান আর কি হতে পারে!! আসুন, আমরা লজ্জায় মরে যাই!'

উল্লেখ্য, যুদ্ধাপরাধের দায়ে আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত দেলাওয়ার হোসেইন সাঈদী কারাগারে বন্দি আছেন। তার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়ে আসছে বিভিন্ন মহল। আপিলের রায় প্রকাশের পর রিভিউ হয়েছে, এখন মামলাটি রিভিউ শুনানি ও নিষ্পত্তির অপেক্ষায়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত