আজ মঙ্গলবার, , ১৭ জানুয়ারী ২০১৭ ইং

পাঠ্যপুস্তকের বিষয়গুলো কে অনুমোদন করেছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী?

প্রকাশিত: ২০১৭-০১-০৭ ০১:৩৩:২২

শওগাত আলী সাগর

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
শিক্ষা মন্ত্রণালয় আপনার নির্দেশনা অক্ষরে অক্ষরে পালন করছে- আপনি এতে খুশি। পাশের হার নিয়ে, মেধা নিয়ে সমালোচনাকে আপনি সহ্য করতেই পারেন না। প্রধানমন্ত্রী হয়েও আপনি নিজে এইসব সমালোচকদের এক হাতে নিতে মাঠে নেমে যান। অথচ দেশের অভিভাবক হিসেবে- আপনার সেই সমালোচনাগুলোর ব্যাপারে খোঁজ খবর করার কথা। প্রধানমন্ত্রী নিজে যখন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষে দাড়িয়ে যান- তখন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের টিকিটি ছোঁয়ার আর কি সাধ্যি থাকে?

বই পুস্তক নিয়ে এই সমালোচনা হচ্ছে, আমি জানি, কাল না হয় পরশু, সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দেওয়ার জন্য বাণী দেবেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাও সম্ভবত ব্যাপারটা জানেন। ফলে তারা ফেসবুকের সমালোচনাকে মোটেই পাত্তা দিচ্ছে না।

আচ্ছা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বাংলাদেশের স্কুলগুলোকে কি পড়ানো হবে- তা ঠিক করে কারা? এর জন্য কি কোনো বিশেষজ্ঞ কমিটি আছে? না মানে, পাঠ্যক্রম প্রণয়ন কমিটি? এইসব কমিটিতে কারা আছেন? তাদের নাম এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার ফিরিস্তি কি প্রকাশ করা যায়। তাদের কি সরকার থেকে কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়? নাকি তারাই ঠিক করেন- কোন ক্লাসের বইয়ে কি থাকবে?

আচ্ছা, ধরলাম কমিটি আছে এবং তারাই ঠিক করেন- পাঠ্যপুস্তকে কি থাকবে। ভালো কথা। সেটা অনুমোদন করার কেউ কি আছেন? কে সেটা অনুমোদন করেন? এইবারের পাঠ্যপুস্তকের বিষয়গুলো কে অনুমোদন করেছেন?

একটি দেশের পাঠ্যপুস্তকে কি পড়ানো হবে- তাতো রাষ্ট্র তথা সরকারের অবস্থানেরই প্রতিফলন। আমরা কি ধরে নেবো- আপনার সরকারের নীতিগত অবস্থানের প্রতিফলনই ঘটেছে পাঠ্যপুস্তক প্রণয়নে?
শওগাত আলী সাগর : সাংবাদিক।
[ফেসবুক থেকে]

আপনার মন্তব্য

আলোচিত